চীন উইঘুর মুসলিমদের উপর ‘গণহত্যা’ চালিয়েছে , আনুষ্ঠানিকভাবে বললো বাইডেন প্রশাসন


যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তর ‘কান্ট্রি রিপোর্টস অন হিউম্যান রাইটস প্র্যাকটিসেস’ সম্প্রতি প্রকাশ করেছে শীর্ষক বার্ষিক মানবাধিকার প্রতিবেদন । দেশটির স্থানীয় সময় মঙ্গলবার বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মানবাধিকারের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের ২০২০ সালের প্রতিবেদনটি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন।

জন ব্লিংকেন

এই প্রতিবেদনে চীনের জিনজিয়াং প্রদেশে সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলমানদের বিষয়ও উঠে এসেছে । এতে বলা হয়েছে- উইঘুরদের উপর চীন ‘গণহত্যা’ চালিয়েছে এবং ‘মানবতাবিরোধী অপরাধ’ করেছে তাদের সাথে । কর্তৃত্ববাদী রাষ্ট্র চীন উল্লেখ করে বলা হয়- পশ্চিম জিনজিয়াং অঞ্চলে নির্বিচারে বন্দি করে রাখা হয়েছে ১০ লাখেরও বেশি উইঘুর এবং অন্যান্য মুসলিমদের বেসামরিক ব্যক্তিকে ।

জোরপূর্বক নারীদের বন্ধ্যা, ধর্ষণ, নির্যাতন করা হচ্ছে সেখানে। বাধ্যতামূলকভাবে তাদের কাছ থেকে শ্রম আদায় এবং কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে তাদের ধর্মীয়, বাক ও চলাচলের স্বাধীনতায়ও ।

মুসলিম

এদিকে ফিনানশিয়াল টাইমস এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়- এর আগেও উইঘুরদের উপর নির্যাতনকে বর্ণনা করতে গিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্লিংকেন ‘গণহত্যা’ শব্দটি ব্যবহার করেছেন। কিন্তু এই প্রতিবেদনের মধ্য দিয়ে এই প্রথম আনুষ্ঠানিকভাবে এমন ভাষা ব্যবহার করলো বাইডেন প্রশাসন।

উল্লেখ্য যে, যুক্তরাষ্ট্রের ‘কান্ট্রি রিপোর্টস অন হিউম্যান রাইটস প্র্যাকটিসেস’ এর প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে ২০২০ সালে গোটা বিশ্বেই মানবাধিকার লংঘনের ঘটনা বৃদ্ধি পেয়েছে। ব্লিংকেন নিজেও সাংবাদিকদের বলেন, মানবাধিকারের ধরণটা ভুল দিকে যাচ্ছে।।

Reply